পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান ২০২৪ আপডেট

প্রিয় পাঠক আপনি কি পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন। তাহলে সঠিক জায়গায় এসেছেন। কেননা আমরা এই পোস্টে আপনাদের জন্য পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরার চেষ্টা করব। 
পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান
পোস্টসুচিপত্রঃআপনি যদি পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চান তাহলে পোস্টটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

ভূমিকা

আপনি যদি পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন করে থাকেন তাহলে সেটি কোন পর্যায়ে রয়েছে সেটি জানতেই পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান করতে হয়। অর্থাৎ আপনার আবেদনটি কর্মকর্তার কাছে পৌঁছালো কিনা তা জানতেই এই অনুসন্ধান করতে হয়। তাছাড়াও আপনার আবেদন বাতিল বা গ্রহণ হলো কিনা তা জানতেও পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান করতে হয়। 
এছাড়া অন্য নতুন মিটার নেওয়ার জন্য আবেদন করলে সেটি গ্রহণযোগ্য হয়েছে কিনা তা জানতেও অনুসন্ধান করতে হয়। এজন্য আপনারা অনেকেই গুগলে সার্চ করে থাকেন পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদনে অনুসন্ধান করার নিয়ম লিখে। তাই আপনাদের সুবিধার জন্য আমরা আজকের পোস্টটিতে এ সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। তাই শেষ পর্যন্ত আমাদের সাথে থাকুন।

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান করার নিয়ম

আপনারা অনেকেই আমাদের কাছে পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। এখন আমার এর নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো। চলুন আর কথা না বাড়িয়ে এবার জেনে নেওয়া যাক।
  • আপনাকে সর্বপ্রথম www.rebpbs.com ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে হবে।
  • এরপর আপনার সামনে একটি আবেদন অনুসন্ধান ফরম আসবে।
  • তারপর আপনাকে আবেদনের পিন নাম্বার ও আবেদন আইডি নাম্বার লিখে ফর্মটি সাবমিট দিতে হবে।
  • এখানে মূলত আবেদন আইডি বলতে ট্রাকিং নাম্বার বলা হচ্ছে যা আমরা ছবিতে দেখাবো।
  • সাবমিট বাটনে ক্লিক করার পর কিছুক্ষন লোড হওয়ার পর আপনার আবেদন সম্পর্কিত সকল তথ্য দেখাবে।
এই তথ্য দেখার মাধ্যমেই আপনি নিশ্চিত হতে পারবেন যে আপনার অনলাইনে আবেদনটি গ্রহণ করা হয়েছে কিনা। তাছাড়াও আপনার মিটার কবে আসবে ইত্যাদি সকল ডিটেলস এখানে জানতে পারবেন। আর যদি কোন তথ্য না দেখাই তাহলে বুঝবেন আপনার ট্রাকিং এর নাম্বার লিখতে ভুল হয়েছে। সর্বশেষে যদি সকল কিছু ঠিক থেকেও যদি কোন তথ্য না দেখায় তাহলে বুঝবেন আপনার আবেদনটি গ্রহণ করা হয়নি অথবা সময় লাগবে। আর যদি বাতিল করে দেওয়া হয় তাহলে আপনি পুনরায় আবার অনলাইনে মিটারের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন করার নিয়ম

আপনারা কি জানেন পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন করার নিয়ম। অর্থাৎ আপনি কিভাবে নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন করবেন তার নিয়ম। এ সম্পর্কে আমরা এই অংশে বিস্তারিত আলোচনা করব। পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন করার জন্য আপনাকে প্রথমেই আপনার একটি পাসপোর্ট সাইজের ছবি এবং আপনার ভোটার আইডি কার্ডের অর্থাৎ পরিচয় পত্রের ছবি তুলে নিবেন এবং সেটি কম্পিউটারে নিয়ে নিবেন। 
এবং আরো বিভিন্ন ধরনের কাগজপত্র যেগুলো একসাথে গুছিয়ে ছবি তুলে নেবেন। সকল কিছু নেওয়া হয়ে গেলে আপনি এবার www.rebpbs.com এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। তাই আপনাকে উক্ত ওয়েবসাইটটিতে প্রবেশ করতে হবে। আপনার কম্পিউটার বা মোবাইলে যে কোন ব্রাউজারে ওয়েবসাইট লিখে সার্চ দিন এবং ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন। 

এরপর আপনি সেখানে পল্লী বিদ্যুৎ মিটার অনলাইন আবেদন করার জন্য একটি ফর্ম পেয়ে যাবেন। সেই ফর্মে আপনাকে সকল ধরনের প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো জমা দিতে হবে। তারপর আপনার ছবি এবং জাতীয় পরিচয়পত্রের ছবিসহ সকল কিছু জমা দিতে হবে। তার আগে আপনাদের অবশ্য জানতে হবে এই ছবিগুলো সাইজ কত হবে। নিম্নে ছবিগুলোর সাইজ দেওয়া হলো।
  • আপনাকে অবশ্যই সদ্য তোলা একটি পাসপোর্ট সাইজের ছবি আপলোড করতে হবে। তার সাইজ হবে ৩০০*৩০০ পিক্সেল এবং মিনিমাম ছবির সাইজ হবে ৫০ KB মধ্যে আর সর্বোচ্চ ছবির সাইজ ১৫০ KB এর মধ্যে হতে হবে।
  • এখন আপনার ভোটার আইডি কার্ড বা জাতীয় পরিচয় পত্রের স্ক্যান করা ছবি লাগবে আর সেটি হতে হবে অবশ্যই রঙিন। ভোটার আইডি কার্ডের ছবির সাইজ হবে  (৬০০*৪৭৫) পিক্সেল ও ছবির ম্যাক্সিমাম সাইজ ৩০০ KB এর মধ্যে রাখতে হবে।
  • এছাড়াও জমির খারিজের ছবিগুলো আপলোড করতে হবে। এর সাইজ হবে 700 KB। আর যদি কাগজ অনেক হয়ে থাকে তাহলে সেগুলো পিডিএফ আকারে আপলোড দিতে পারেন।
চলুন এবার সকল কিছু বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক যে আপনি কিভাবে অনলাইনে মিটারের জন্য আবেদন করবেন।

ধাপ-০১

সর্বপ্রথম আপনি আপনার মোবাইলে অথবা কম্পিউটারে যেকোনো একটিতে ক্রোম ব্রাউজার অথবা যে কোন ব্রাউজারে www.rebpbs.com লিখে সার্চ করে আবেদন করার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন। এরপর উপরে আবেদন নামে একটা অপশন থাকবে সেখানে ক্লিক করবেন। এরপর দেখবেন আপনার সামনে নিম্নের উল্লেখিত ছবির মত আবেদন ফরম আসবে।
উপরে ছবিতে দেওয়া লাল রংয়ের স্টার চিহ্ন গুলো অবশ্যই পূরণ করতে হবে। আপনি যে এলাকায় থাকেন সেই এলাকায় অনুযায়ী বিদ্যুৎ সমিতি ও জোনাল অফিস লিস্ট থেকে সিলেক্ট করুন। বাসা বাড়ি যদি একক হয়ে থাকে তাহলে আপনি আবাসিক সিলেক্ট করবেন। আর যদি আপনার বাসা ফ্ল্যাট বাড়ি হয়ে থাকে তাহলে আপনি এমটি-এ আবাসিক সিলেক্ট করবেন। 

এরপর আপনাকে যিনি আবেদন করছেন তার মাতা পিতার নাম লিখতে হবে আর অবশ্যই নাম বাংলাতে হতে হবে। পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ফরমে যেখানে ইংলিশে লেখা রয়েছে সেখানে ইংলিশে লিখতে হবে। এরপর আপনি আবেদনকারী হলে আপনার স্থায়ী ঠিকানা দিন। এভাবে সকল কিছু লেখা রয়েছে ফর্ম এ ওই সকল তথ্যগুলো পূরণ করবেন।
এভাবে উপরের দেওয়া সকল তথ্যগুলো পূরণ করা হয়ে গেলে এবং ডকুমেন্টসগুলো ও ছবিগুলো আপলোড করা হয়ে গেলে ফর্মের নিচের দিকে চলে আসবেন এখানে দেখছেন একটি বক্সে হিউম্যান ভেরিফিকেশন করার জন্য একটি কোড রয়েছে কোডটি উক্ত ছবিতে মার্ক করা জায়গা টিতে লিখবেন। এরপর আপনি সংরক্ষণ করুন বাটনে ক্লিক করবেন। তাহলে হয়ে গেল আপনার আবেদন করা। 

এরপর আপনার আবেদন করা হয়ে গেলে আবেদনটি সংরক্ষণ করা হলে তখন আপনি একটি ট্রাকিং নাম্বার ও পিন কোড পাবেন যেটি আপনার জন্য পরবর্তীতে পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান করার জন্য লাগবে। তাই কোড গুলো যত্ন সহকারে কোথাও লিখে রাখবেন। সংরক্ষণ করা হয়ে গেলে আপনাকে একটি পিডিএফ দিবে পিডিএফ টি আপনি ফটোকপি করে রাখতে পারেন। 
এরপর আপনাকে হাউজ ওয়্যারিং নিশ্চিত করার জন্য আপনার প্রয়োজনে ডকুমেন্ট অর্থাৎ বিল্ডিং এর ওয়ারিং কাগজ সমূহ(গ্রাউন্ড রড ক্রয়ের মেমো) আপলোড দিয়ে সাবমিট করতে হবে। এর জন্য আপনাকে পুনরায় ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে মেনু থেকে আবেদন অপশনে ক্লিক করবেন এরপর হাউজ ওয়্যারিং সিলেক্ট করার পর আপনার ট্র্যাকিং নাম্বার ও পিন কোড দিয়ে লগইন করে সাবমিট করতে হবে। আর অবশ্যই শেষে আবেদন ফ্রি জমা দিতে হবে। তাহলে আপনার আবেদন কমপ্লিট হয়ে যাবে।

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান 

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান করার জন্য প্রথমেই তাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে হবে। তাদের ওয়েবসাইটটি হলো www.rebpbs.com। যেকোনো ব্রাউজার থেকে উক্ত ওয়েবসাইটটিতে ভিজিট করুন। ওয়েবসাইটটিতে প্রবেশ করার পর একটি শিল্প সংযোগের আবেদন নামে সেকশন পাবেন সেখানে ক্লিক করুন। তারপর সেখান থেকে আবেদনের সর্বশেষ অবস্থা জানুন এমন লেখা একটি অপশন পাবেন সেখানে ক্লিক করুন। যা আমরা চিত্রের মাধ্যমে দেখিয়ে দিচ্ছি।
উক্ত অপশনটিতে ক্লিক করার পর আবেদন অনুবন্ধন করার বক্স চলে আসবে যেখানে আপনার আবেদন করার ট্র্যাকিং আইডি ও পিন কোড নম্বর দিয়ে সাবমিট করতে হবে। তারপর আপনার সামনে সকল ধরনের তথ্য show করবে। 

যেখানে আপনি আবেদন সম্পর্কিত সকল কিছু তথ্য জানতে পারবেন এবং আপনার আবেদনটি এখন কি অবস্থায় আছে সেটিও দেখতে পারবেন। আপনারা আবেদনটি গ্রহণযোগ্য হয়েছে কিনা সেটিও দেখা যাবে। আর যদি কোন তথ্য যেন পান তাহলে বুঝবেন আপনার আইডি নাম্বার দেওয়া ভুল হয়েছে। সঠিক আইডি নাম্বার দিয়ে লগইন করুন।

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন ফরম শর্ত

মিটার আবেদন অনুসন্ধান করার আগে আপনাকে অবশ্যই পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। আর সেই সম্পর্কে আমরা এই অংশে বিস্তারিত আলোচনা করব। আর এটি করার জন্য আপনাকে সঠিকভাবে ফরম পূরণ করতে হবে। চলুন কথা না বাড়িয়ে এবার জেনে নেওয়া যাক।
  • প্রথমে আপনাকে পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদনের জন্য ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে।
  • আবেদন ফ্রমে আপনাকে আপনার ছবি ও জাতীয় পরিচয় পত্র এবং খারিজের স্ক্যান কপি আপলোড করতে হবে।
  • আপনার সংযোগস্থল থেকে বৈদ্যুতিক পোলের দূরত্ব ১৩০ এর মধ্যে হতে হবে।
  • সার্ভিস ড্রপের দূরত্ব সঠিক ভাবে দিতে হবে। তা না হলে দৈর্ঘ্য কম বেশি হয়ে গেলে তখন তারে কম হয়ে গেলে সংযোগ পেতে বেশি সময় লাগতে পারে।
  • আবেদন করার সময় যিনি আবেদন করবেন তার মোবাইল নাম্বার ও নাম প্রয়োজন হবে।
  • যিনি আবেদন করবেন তার ভোটার আইডি কার্ড নাম্বার ও স্থায়ী ঠিকানা প্রয়োজন হবে।
  • যেখানে সংযোগ নিবেন তার জমির মালিকানা তথ্য সহ বিস্তারিত তথ্য প্রদান করতে হবে।
  • ছবি যুক্ত প্রয়োজনে ডকুমেন্টসহ সকল কিছু স্ক্যান করে রাখুন এগুলো আপলোড দিতে হবে ফ্রম এ।
  • সকল কিছু তথ্য পূরণ হয়ে গেলে আবেদন ফরমের শেষে সাবমিট অপশনটিতে ক্লিক করুন।
  • এরপর আপনাকে একটি পিডিএফ দেওয়া হবে সে পিডিএফটি ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিন।
  • অবশেষে হাউজ ওয়ারিং নিশ্চিত করার জন্য আবেদন সেকশনে হাউস ওয়ারিং অপশনটিতে ক্লিক করুন সেখানে আপনার ট্র্যাকিং নাম্বার ও পিন নাম্বার দিয়ে লগইন করে তথ্য দিয়ে সাবমিট করুন।
  • সবার শেষে আপনাকে আবেদনের জন্য নির্দিষ্ট একটি ফ্রি জমা দিতে হবে।
তাহলে আশা করছি বুঝতে পেরেছেন আবেদন করতে হলে কি কি প্রয়োজন হয়। এই বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান করার আগে আপনি যদি আবেদন করতে চান তাহলে উক্ত দেওয়া নিয়ম গুলো মাথায় রেখে আবেদন করবেন।

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন ফি কত

আপনার অনেকেই আমাদের কাছে জানতে চেয়েছেন পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন ফ্রি কত। তবে বলতে গেলে পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন করার পর একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ ফি জমা দিতে হয়। চলুন আমরা সেটি জেনে নেই। পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন ফ্রি ১১৫ টাকা মাত্র। অর্থাৎ আপনাকে আবেদন করা শেষে রকেটের মাধ্যমে ১১৫ টাকা ফ্রি জমা দিতে হবে। এটি আপনি মোবাইল ব্যাংকিং রকেট এপস এর মাধ্যমে দিতে পারবেন।

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন এসএমএস অনুসন্ধান

আপনি যদি এসএমএস এর মাধ্যমে পল্লী বিদ্যুতের মিটার আবেদন সম্পর্কে জানতে চান তাহলে অবশ্যই এসএমএস অনুসন্ধান করতে হবে যা আমরা এই অংশটিতে গুরুত্ব সহকারে আলোচনা করব। যাতে আপনি এসএমএস এর মাধ্যমে অনুসন্ধান করতে পারবেন। আপনাকে প্রথম www.rebpbs.com ওয়েবসাইটটিতে প্রবেশ করতে হবে।

এরপর শিল্প সংযোগের আবেদন অপশনটিতে ক্লিক করবেন । এবার চিত্রের ন্যায় একটি ছবি দেখতে পাবেন যেখানে লেখা রয়েছে অফিস কর্তৃক সকল এসএমএস দেখুন এই অপশনটিতে ক্লিক করবেন। যা আমি ছবিতে লাল দাগ দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছি।
এরপর উক্ত জায়গা ক্লিক করলে আপনি আরেকটি from দেখতে পারবেন যেখানে আপনার আবেদন করার পর যে ট্রাকিং নাম্বার ও পিন কোড পেয়েছেন সেটি দিয়ে লগইন করে সাবমিট দিতে হবে। নিম্নে ছবি দেওয়া হল।
উপরে ছবি দেখে আপনার হয়তো বুঝে গেছেন কিভাবে পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন এসএমএসের মাধ্যমে অনুসন্ধান করবেন অর্থাৎ আপনি আপনার আবেদনের ডিটেলস মেসেজের মাধ্যমে দেখতে পারবেন।

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান সম্পর্কে (FAQ)

প্রশ্নঃ বিদ্যুতের মিটারের জন্য আবেদন করতে কি কি লাগে?
উত্তরঃ বিদ্যুতের মিটারের জন্য আবেদন করতে সাধারণত আবেদনকারী ব্যাক্তির নাম , খারিজের তথ্য , মোবাইল নাম্বার , জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার , বসবাসের ঠিকানা ইত্যাদি সহ আরো তথ্য প্রয়োজন হয়।

প্রশ্নঃ বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড কত সালে প্রতিষ্ঠিত হয়?
উত্তরঃ ১৯৭৭ সালে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড প্রতিষ্ঠিত হয়।

প্রশ্নঃ পল্লী বিদ্যুৎ প্রতি ইউনিট কত টাকা?
উত্তরঃ পল্লী বিদ্যুৎ প্রতি ইউনিট ৭ টাকা ৪৮ পয়সা।

প্রশ্নঃ বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন ফি কত?
উত্তরঃ বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন ফি মাত্র ১৫০ টাকা।

প্রশ্নঃ বৈদ্যুতিক মিটার পরিবর্তন করা যাবে কি?
উত্তরঃ হ্যাঁ অবশ্যই , বৈদ্যুতিক মিটার পরিবর্তন করা যাবে।তার জন্য আপনাকে অনলাইনে নতুন মিটারের জন্য আবেদন করতে হবে।

শেষ কথা

আশা করছি প্রিয় পাঠক তখনই আপনারা পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান করার নিয়ম গুলো বিস্তারিত জেনে গেছেন। তাই আপনারা যদি পল্লী বিদ্যুতের মিটারের জন্য আবেদন করে থাকেন উক্ত মাধ্যম গুলোর মাধ্যমে আবেদনের ডিটেলস বা তথ্য দেখতে পারবেন। এছাড়াও নতুন মিটার সংযোগ নেওয়ার জন্য আবেদন করতে পারবেন যা আমরা পোস্টে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। আশা করছি পোস্টটি ভাল লেগেছে। এ ধরনের তথ্য পেতে আমাদের ওয়।।সাইটে নিয়মিত ভিজিট করতে পারেন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি বিডির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url