ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার সর্বশেষ সেরা ১৫টি উপায়[বিস্তারিত তথ্য]

বর্তমানে কমবেশি সকলের প্রায় অনলাইনের মাধ্যমে ঘরে বসেই টাকা আয় করছে। আপনিও অনলাইনে মাধ্যমেই ফেসবুক ব্যবহার করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আপনারা অনেকেই ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার উপায় সম্পর্কে জানতে চান। এজন্য আমরা আপনাদের জানার সুবিধার্থে ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা তুলে ধরব।
ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়
আর্টিকেল সূচিপত্রঃপ্রিয় পাঠক আপনারা যদি ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার বিভিন্ন উপায় সম্পর্কে জানতে চান তাহলে অবশ্যই পোস্টটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়বেন। কারণ পোস্টটিতে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

ভূমিকা

বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া সাইট হল ফেসবুক। যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ফেসবুক বর্তমানে জনপ্রিয়তা শীর্ষে রয়েছে। পৃথিবীর সকলের প্রায়ই কমবেশি ফেসবুক ব্যবহার করে থাকে। ফেসবুক ব্যবহার করে আমরা একে অপরের সাথে যোগাযোগ করতে পারি এবং বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারি। তবে বর্তমানে সকলেই ফেসবুক ব্যবহার করে অনলাইনে টাকা আয় করছে। আপনারা চাইলে ফেসবুক ব্যবহার করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। 

ফেসবুক ব্যবহার করে টাকা ইনকাম করার অনেক ধরনের উপায় রয়েছে, যে সম্পর্কে জানলে আপনারা হয়তো উপায়গুলো কাজে লাগিয়ে অতি সহজে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। আর এজন্য আমরা আজকের আর্টিকেলটিতে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা তুলে ধরার চেষ্টা করব। তাছাড়া ফেসবুক থেকে আপনি কিভাবে টাকা আয় করতে পারবেন সে সম্পর্কেও আলোচনা করা হবে।

ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়

আপনারা সকলেই হয়তো ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার উপায় সম্পর্কে জানার জন্য এতক্ষণ ধরে অপেক্ষা করে রয়েছেন। তবে আপনারা চিন্তিত হবেন না, কারণ আমরা এই অংশে ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার বিভিন্ন উপায় সম্পর্কে তুলে ধরব। বর্তমান সময়ে ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করা খুবই সহজ বিষয়। শুধুমাত্র আপনার ধৈর্য ধরতে হবে এবং পরিশ্রম করে কাজ করে যেতে হবে। ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার বিভিন্ন উপায় রয়েছে চলুন সেই উপায়গুলো জেনে নেই।
  • ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে ইনকাম
  • ফেসবুক পেজ বিক্রি করে ইনকাম
  • ফেসবুক মার্কেটপ্লেস থেকে টাকা আয়
  • অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে  আয়
  • কোম্পানির পণ্য স্পন্সর করে আয়
  • Facebook লাইভ করে আয়
  • ফেসবুক রিলস থেকে আয়
  • ফেসবুকে লেখালেখি করে আয়
  • Facebook বিজ্ঞাপন থেকে আয়
  • পণ্য বা পরিষেবা বিক্রি করে আয়
  • পরামর্শ এবং কোচিং করিয়ে আয় করা
  • ফেসবুক ইভেন্টের মাধ্যমে টাকা আয়
  • ফেসবুকে গেমিং স্টিম করে আয় করা
  • ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয়
  • ফেসবুকে বিষয়বস্তু তৈরি করে আয় করা
আপনারা উপরের লিস্টে দেওয়া উপায় গুলো অবলম্বন করে ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এই উপায়গুলো ভালোভাবে মেনে চললে অতি সহজেই ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায়। তবে আপনাদের অবশ্যই উপায় গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হবে, আর সেজন্য আমরা এখন উপরের দেওয়া উপায় গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা তুলে ধরব।

ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে ইনকাম

বর্তমানে ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার সবচেয়ে সহজ মাধ্যম হলো ভিডিও আপলোড করা। ভিডিও আপলোড করার মাধ্যমে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায়। ভিডিও কনটেন্ট তৈরি করে সেটি ফেসবুকে আপলোড করে প্রচুর টাকা আয় করা যায়। বর্তমানে কমবেশি সকলেই ফেসবুকে ভিডিও বানিয়ে টাকা ইনকাম করছে। 
ভিডিও কনটেন্ট ফেসবুকে আপলোড করে অ্যাড দেখানোর মাধ্যমে টাকা আয় করা যায়। তবে আপনাকে ফেসবুক পেজে মনিটাইজেশন পেতে হবে। ফেসবুকের নিয়ম অনুযায়ী কনটেন্ট তৈরি করে আপলোড করলে সহজেই মনিটাইজেশন পাওয়া যায়। আর এই মনিটাইজেশন অন হয়ে গেলে আপনার টাকা ইনকাম শুরু হবে। ভিডিওতে দেখানো বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে টাকা আয় করা যায়। 

তবে আপনাদের ভিডিও থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য সৃজনশীল ভিডিও বানাতে হবে এবং ভিডিও কোয়ালিটি ভালো হতে হবে। আপনি যখন ভালো কোয়ালিটির ভিডিও আপলোড করবেন তখন আপনার ভিডিওতে ভিজিটর বাড়বে যার ফলে আপনার টাকা ইনকাম অনেকটা বেড়ে যাবে। এভাবে আপনারা ফেসবুকের নিয়ম মেনে ভিডিও আপলোড করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ফেসবুক পেজ বিক্রি করে ইনকাম

বর্তমানে ভালো একটি ফেসবুক পেজে অনেক চাহিদা রয়েছে। আপনার যদি অনেক লাইক ও ফলোয়ারযুক্ত ফেসবুক পেজ থাকে তাহলে সেটি আপনি বিক্রি করে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন। অনেক ইউটিউবার ও ব্লগার রয়েছে যারা তাদের চ্যানেল প্রমোট করার জন্য বা চ্যানেলের উন্নতি করার জন্য ফেসবুক পেজ কিনে থাকে। 
এখন আপনার পেজে যদি ভালো পরিমাণ ফলোয়ার থাকে তাহলে আপনি সেটি ভালো দামে বিক্রি করতে পারবেন। আপনি ফেসবুক পেজ বিক্রি করার জন্য ফেসবুকে ফেসবুক পেজ বিক্রি সংক্রান্ত একটি পোস্ট করতে পারেন। বর্তমানে ফেসবুকে বিভিন্ন ধরনের গ্রুপ রয়েছে যেখানে ফেসবুক পেজ কেনা বেচা হয়ে থাকে। 

আপনারা সেই গ্রুপগুলোতে ফেসবুক পেজ বিক্রি করার পোস্ট দিতে পারেন। কোন ব্যক্তি আপনার ফেসবুক পেজ পছন্দ করলে তিনি আপনাকে কল করে জানাতে পারবে এবং ফেসবুক পেজ কেনার জন্য যোগাযোগ করতে পারবে। এভাবে আপনি একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করে ফলোয়ার বা লাইক সংখ্যা বাড়িয়ে, ফেসবুক পেজ বিক্রি করে টাকা আয় করতে পারবেন। এজন্য আমরা বলব আপনারা ফেসবুক পেজ তৈরি করুন এবং সেটিতে বিভিন্ন কনটেন্ট লিখে ফলোয়ার বা লাইক সংখ্যা বাড়ানোর চেষ্টা করবেন।

ফেসবুক মার্কেটপ্লেস থেকে টাকা আয়

ফেসবুক মার্কেটপ্লেসে পণ্য ও পরিষেবা বিক্রি করে টাকা আয় করা যায়। আপনার যদি কোন পণ্য থাকে সেটি আপনি ফেসবুক মার্কেট প্লেসে পোস্ট করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। ফেসবুক মার্কেটপ্লেস এর মাধ্যমে অতি সহজে যে কোন পণ্য বা পরিষেবা বিক্রি করা যায়। ফেসবুক মার্কেটপ্লেস অনেকটা শপিং ওয়েবসাইটের মত দেখতে হয়ে থাকে। 
এখানে সকল পণ্য লিস্ট আকারে দেওয়া থাকে। যেখানে গ্রাহকরা পছন্দ অনুযায়ী পণ্যগুলো কিনতে পারবে। আপনার যেকোন পণ্য এই ফেসবুক মার্কেট প্লেসে বিক্রি করতে পারবেন। মূল কথায় আপনি আপনার পণ্যগুলো ফেসবুক মার্কেটপ্লেসে প্রচার করবেন। ফেসবুক মার্কেট প্লেসে থাকা আপনার পণ্যগুলো কোন ব্যক্তি পছন্দ করলে সেই ব্যক্তি আপনাকে মেসেজ অথবা কল দিয়ে পণ্যটি ক্রয় করতে পারবে। 

এখানে মার্কেটপ্লেসে সরাসরি যোগাযোগ করার ব্যবস্থা রয়েছে। যার মাধ্যমে আপনি অতি সহজেই গ্রাহকদের সাথে কমিউনিকেট বা যোগাযোগ করতে পারবেন। কোন ফেসবুক ব্যবহারকারী ব্যক্তি যদি আপনার পণ্য পছন্দ করে তিনি পণ্যটি ক্রয় করার জন্য আপনাকে সরাসরি মেসেজ করতে পারবে। এভাবেই আপনি ফেসবুক মার্কেটপ্লেস থেকে খুব সহজে টাকা আয় করতে পারবেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে  আয়

আপনার অনেকে আছেন যারা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে জানেন। তবুও আমরা এখন এফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে কিছুটা ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করব। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং মূলত কোন কোম্পানির পণ্য বিক্রি করে দেওয়া জন্য প্রমোট করা। আরেকভাবে বলা যায় অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হল কোনো কোম্পানির পণ্য বিক্রি করলে তার কাছ থেকে কমিশন পাওয়া যায়। 
আপনি যে কোন কোম্পানি পণ্য ও পরিষেবা youtube চ্যানেল অথবা ফেসবুক পেজের মাধ্যমে প্রমোশন করার মাধ্যমে তাদের পণ্য বিক্রি করে দিতে পারেন। আর তাদের পণ্য বিক্রি হলে আপনি সেই পণ্যের থেকে নির্দিষ্ট পরিমাণ কমিশন পাবেন। এভাবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হয়ে থাকে। আপনারা যদি একটি বেশি ফলোয়ারযুক্ত ফেসবুক পেজ থেকে থাকে তাহলে আপনি সেই ফেসবুক পেজের মাধ্যমে কোন কোম্পানির পণ্য বিক্রি করার জন্য বিজ্ঞাপন দিতে পারেন। 

এতে করে আপনার ফলোয়াররা সেই পণ্যগুলো ক্রয় করলে সেখান থেকে আপনি নির্দিষ্ট পরিমাণ কমিশন পাবেন। এভাবে আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন।

কোম্পানির পণ্য স্পন্সর করে আয়

আপনারা চাইলে facebook পেজ ব্যবহার করে কোম্পানির পণ্য স্পন্সর করে টাকা আয় করতে পারবেন। আপনার যদি বেশি সংখ্যক ফলোয়ার বা লাইক যুক্ত ফেসবুক পেজ থাকে সেটিতে আপনি বিভিন্ন কোম্পানির পণ্য প্রমোট করতে পারেন অথবা স্পন্সর করতে পারেন। এতে করে কোম্পানি তাদের পণ্য দ্রুত বিক্রি করতে পারবে এবং স্পন্সর করার জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা পেমেন্ট দিবে। এভাবে আপনি বিভিন্ন কোম্পানির পণ্য স্পন্সর করে প্রতিনিয়ত প্রচুর টাকা ফেসবুক পেজ থেকে আয় করতে পারবেন।

Facebook লাইভ করে আয়

ফেসবুকে লাইভ ভিডিও করে টাকা আয় করা যায়। আপনার ফেসবুক পেজে অথবা ফেসবুক অ্যাকাউন্টে মনিটাইজেশন অন থাকলে লাইভ ভিডিও করার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তাছাড়া ফেসবুক লাইভে বিভিন্ন ধরনের পণ্য রিভিউ করতে পারেন এবং পণ্যগুলো বিক্রি করার জন্য প্রচার করতে পারবেন। এর ফলে গ্রাহকরা আপনার লাইভ ভিডিওতে পণ্যের রিভিউ দেখে কেনার জন্য আগ্রহী হতে পারে। এভাবে আপনি লাইভ ভিডিও করার মাধ্যমে ফেসবুক থেকে অতি সহজেই ৩০ হাজার টাকার উপরে আয় করতে পারবেন।

ফেসবুক রিলস থেকে আয়

বর্তমানে টিকটকের মত ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে রিলস থেকে আয় করা যাচ্ছে। টিকটকে আমরা যেমন শর্ট ভিডিও রিলস আকারে আপলোড দিয়ে থাকি। ঠিক একই ভাবে ফেসবুকেও শর্ট ভিডিও আপলোড করা যায়। আর ফেসবুকের এই শর্ট ভিডিও কে রিলস বলা হয়ে থাকে। এই রিলস ভিডিও আপলোড দেওয়ার মাধ্যমে ফেসবুক থেকে আয় করা সম্ভব। তবে প্রতিনিয়ত নতুন ধরনের রিলস ভিডিও আপলোড করতে হবে। 
ফেসবুক রিলস থেকে আয়
আর আপনার ফেসবুক চ্যানেলে অবশ্যই মনিটাইজেশন থাকতে হবে। আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বা ফেসবুক পেজে মনিটাইজেশন চালু থাকলে ফেসবুক রিলস বানিয়ে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আর ফেসবুক রিলস এ দ্রুত ভিজিটর পাওয়া যায়। এজন্য আপনারা প্রথম থেকেই ফেসবুকে রিলস বানিয়ে শুরু করতে পারেন।

ফেসবুকে লেখালেখি করে আয়

আপনারা চাইলে ফেসবুকে লেখালেখি করার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। বিভিন্ন গ্রুপে লেখালেখি করার কাজ রয়েছে, সেখানে আপনারা লেখালেখি করে নির্দিষ্ট টাকা আয় করতে পারবেন। তাছাড়া বর্তমানে ফেসবুক পেজে লেখালেখি করে টাকা আয় করা যাচ্ছে। আপনি নির্দিষ্ট কনটেন্ট এর ওপর লেখালেখি করবেন এবং আপনার ফলোয়ার বাড়লে আপনি মনিটাইজেশনের জন্য এপ্লাই করতে পারেন। 

আপনার ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন হইলে সেখান থেকে আপনি কন্টেন্ট আপলোড করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আশা করছি যাদের লেখালেখি করার শখ রয়েছে তারা চাইলে এই কাজটি ফেসবুকে করতে পারেন। তাছাড়া বিভিন্ন কোম্পানি ফেসবুকে লেখালেখি করার জন্য হায়ার করে থাকে। আপনারা তাদের সাথে কাজ করতে পারেন। এভাবে আপনি আকর্ষণীয় পোস্ট লিখে টাকা আয় করতে পারবেন।

Facebook বিজ্ঞাপন থেকে আয়

আপনার ফেসবুক থাকলে আপনি সেই পেজটিতে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন। তবে বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য আপনার ফেসবুক পেজে মনিটাইজেশন অন থাকতে হবে। আর facebook এর নিয়ম অনুযায়ী কাজ করলে সহজেই মনিটাইজেশন পাওয়া যায়। ভিডিও বা কনটেন্ট এর মধ্যে বিজ্ঞাপন দেখানোর মাধ্যমে প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন। বর্তমানে ফেসবুক নতুন ভিডিও কনটেন্ট এর উপর গুরুত্ব দিয়েছে। 

এখানে যারা সৃজনশীল ও নতুন ধরনের আকর্ষণীয় ভিডিও তৈরি করে তাদের বেশি মূল্যায়ন করা হবে। আপনি চাইলে নতুন ধরনের সৃজনশীল ভিডিও বানিয়ে আপলোড করতে পারেন। আর একবার মনিটাইজেশন অন হলে সেই ভিডিওগুলোতে বিজ্ঞাপন দেখাতে পারবেন, আর সেই বিজ্ঞাপন দেখিয়ে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

পণ্য বা পরিষেবা বিক্রি করে আয়

আপনার যদি কোন ব্যবসা থাকে তাহলে সেটি আপনি ফেসবুক পেজের মাধ্যমে প্রমোট করতে পারেন। আপনার ব্যবসার যেকোনো পণ্য ফেসবুক পেজের মাধ্যমে বিক্রি করতে পারেন। এছাড়াও যে কোন কোম্পানির পণ্য ও পরিষেবা আপনার ফেসবুক পেজের মাধ্যমে প্রমোট করে টাকা আয় করতে পারবেন। আপনি যদি কোম্পানির পন্য বিক্রি করে দিতে পারেন তাহলে তাদের কাছ থেকে ভালো অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। 

তাছাড়াও তাদের পণ্যগুলো স্পন্সর করে দিয়ে অর্থ উপার্জন করা যায়। এভাবে আপনি নিজের ব্যবসার পণ্য অথবা কোম্পানির ব্যবসার পণ্য প্রমোট করার মাধ্যমে বিক্রি করতে পারবেন। তবে আপনাদের মনে রাখতে হবে এর জন্য অবশ্যই প্রচুর ফলোয়ার বা লাইক যুক্ত ফেসবুক পেজ প্রয়োজন হবে।

পরামর্শ এবং কোচিং করিয়ে আয় করা

আপনার যেকোন বিষয়ে ভালো দক্ষতা বা অভিজ্ঞতা থাকলে সেই বিষয়টি আপনি অনলাইনে ফেসবুকের মাধ্যমে কোচিং করাতে পারবেন। আর সেই কোচিং করিয়ে আপনারা অনলাইন স্টুডেন্টদের কাছ থেকে মাসিক একটা বেতন নিতে পারেন। বর্তমানে বেশিরভাগ ফেসবুক ব্যবহারকারীরা অনলাইনে কোর্স করিয়ে থাকে। ধরুন আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন সম্পর্কে ভালো জানেন এবং গ্রাফিক্স ডিজাইনে আপনার অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা রয়েছে। 

তাহলে আপনি সেই গ্রাফিক্স ডিজাইনের দক্ষতা কাজে লাগিয়ে অনলাইনে কোর্স করাতে পারেন। অনেক ব্যক্তি রয়েছে যারা অনলাইনের মাধ্যমে কম খরচে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে চায়। আপনারা তাদের জন্যই ফেসবুক পেজে পাইভেট ভিডিও বানিয়ে আপলোড করে টাকা নিয়ে মরতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে আপনার কোচিং করানোর বিষয়টি প্রচার প্রচারণা করতে হবে। এতে করে গ্রাহকরা আকৃষ্ট হয়ে আপনার কোর্সটিতে ভর্তি হতে পারে।

ফেসবুক ইভেন্টের মাধ্যমে টাকা আয়

আপনার ফেসবুক পেজ থাকলে, সেই অফ পেজে অর্থের বিনিময়ে ইভেন্ট পরিচালনা করতে পারেন। ফেসবুকের এই ইভেন্ট ফিচার এর মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবেন। তাছাড়াও ফেসবুকে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন রকম ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। আপনারা চাইলে সেই ইভেন্ট গুলোতে অংশগ্রহণ করে প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারেন। তাছাড়াও ব্যবসার পণ্য ফেসবুক ইভেন্টের মাধ্যমে ডিসকাউন্ট প্রদান করে বিক্রয় করতে পারেন। 

আপনারা ফেসবুক পেজে বিভিন্ন পণ্যের ব্যবসা নিয়ে ইভেন্ট তৈরি করতে পারেন। সেখানে আপনারা পণ্যগুলোতে ডিসকাউন্ট অফার প্রদান করবেন। যার ফলে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা আপনার ইভেন্টে আগ্রহী হবে এবং পণ্যগুলো দেখে ক্রয় করবে। এতে করে আপনি লাভবান হবেন এবং অপরজন সহজেই ডিসকাউন্টে পণ্য কিনতে পারবে। আপনার এই সার্ভিসটি চালু করার জন্য অবশ্যই ফেসবুক পেইড ইভেন্ট অপশন চালু করতে হবে। আর ফেসবুক পেইড ইভেন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে youtube-এ সার্চ করে দেখতে পারেন।

ফেসবুকে লাইভ গেমিং স্টিম করে আয় করা

আপনারা বিভিন্ন গেম খেলে লাইভ স্ট্রিম করার মাধ্যমে প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন। বর্তমানে গেম কোম্পানিগুলো ফেসবুকে গেমিং স্টিম করার জন্য স্পন্সার সিপ দিয়ে থাকে। আর সেই স্পন্সরের তাদের গেম প্রোমোট করার জন্য প্রচুর টাকা দিয়ে থাকে। তাছাড়াও গেমিং ভিডিওগুলো থেকেও ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করা যায়। 

আপনার ফেসবুক পেজে মনিটাইজেশন থাকলে, গেমিং ভিডিও লাইভ স্ট্রিম করে এড দেখানোর মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। তাছাড়া বিভিন্ন কোম্পানির সাথে পার্টনারশিপ নিতে পারেন। এতে করেও প্রচুর টাকা ইনকাম করা যায়। ফেসবুকে গেমিং স্টিম করে টাকা ইনকাম করার জন্য আপনার ভিডিওগুলোতে প্রচুর ভিউ আসতে হবে। 

আর ভিউ আসার জন্য আপনাকে আকর্ষণীয়ভাবে গেমিং ভিডিও লাইভ স্ট্রিম করতে হবে। একসময় যখন আপনার ভিডিওগুলোতে view বেশি আসবে তখন আপনি গেমিং কোম্পানিগুলোর সাথে স্পন্সর শিপে যেতে পারেন।

ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয় করার উপায়

বর্তমানে ফেসবুক গ্রুপ পরিচালনা করেও টাকা আয় করা যায়। ফেসবুকে অনেক বড় ধরনের ফলোয়ারযুক্ত ফেসবুক পেজ অথবা ফেসবুক গ্রুপে এসে। যেখানে ফেসবুক গ্রুপ পরিচালনা করার জন্য মডারেটর প্রয়োজন হয়। আপনি সেখানে মডারেটর হিসেবে যোগদান করতে পারেন। ফেসবুক গ্রুপে আপনি মডারেটর হিসেবে জয়েন করে ফেসবুক গ্রুপ পরিচালনা করতে পারেন। 

আর আপনার সেই মডারেটর কাজের জন্য ফেসবুক গ্রুপের মালিকের কাছ থেকে মাসিক একটা বেতন নিতে পারেন। এতে করে আপনি অল্প সময় ব্যয় করেই টাকা ইনকাম করতে পারবেন। ফেসবুক গ্রুপে মডারেটর হিসেবে কাজ করলে তেমন সময় দেওয়ার প্রয়োজন হয় না, সারাদিনে দুই থেকে তিন ঘন্টা সময় দিলেই হয়। তাহলে বুঝতে পারছেন ফেসবুক গ্রুপ থেকেও টাকা আয় করা যায়।

ফেসবুকে বিষয়বস্তু তৈরি করে আয় করা

ফেসবুকে বিভিন্ন ধরনের ভিডিও কনটেন্ট অথবা চিত্র কন্টেন্ট আপলোড করার মাধ্যমে আয় করা সম্ভব। তাছাড়াও আর্টিকেল লিখেও ফেসবুকে আয় করা যায়। কারণ আপনার ফেসবুক পেজ থাকলে সেটি গ্রো করার জন্য পোস্ট করতে হয়। এজন্য আপনি ফেসবুক পেজে লাইক সংখ্যা আর ফলোয়ার সংখ্যা বাড়ানোর জন্য প্রতিনিয়ত আর্টিকেল লিখতে পারেন। 

আকর্ষণীয় আর্টিকেল লিখলে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা সেই আর্টিকেলগুলো পড়ার জন্য আপনার ফেসবুক পেজে আসবে। আর যদি পোস্টগুলো ভালো লেগে থাকে তাহলে তারা আপনার ফেসবুক পেজ ফলো করবে। এভাবে আপনি ফলোয়ার বাড়িয়ে আপনার ফেসবুক পেজ গ্রো করতে পারেন। 

তারপর আপনি Sponsored content পাবলিশ করার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারেন। facebook গ্রুপ থেকে বিভিন্ন blogs বা YouTube channel গুলোতে traffic বিক্রি করার মাধ্যমে তাদের কাছ থেকে টাকা নিতে পারেন। এভাবে আপনি বিভিন্ন পদ্ধতিতে বিষয়বস্তু তৈরি করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ফেসবুক থেকে আয় করার উপায় সম্পর্কিত সাধারণ জিজ্ঞাসা(FAQs)

প্রশ্নঃ ফেসবুক পেজে কত ফলোয়ার হলে টাকা ইনকাম হয়?
উত্তরঃ ফেসবুক পেজে কমপক্ষে ১ হাজার ফলোয়ার হলে টাকা ইনকাম করার জন্য মনিটাইজেশনে এপ্লাই করতে পারেন।

প্রশ্নঃ ফেসবুক পেজ থেকে টাকা ইনকাম কি হালাল?
উত্তরঃ ফেসবুক পেজ থেকে টাকা ইনকাম হালাল হবে কিনা সেটি নির্ভর করে আপনার ভিডিও কনটেন্ট এর উপর। আপনার ভিডিও কনটেন্ট যদি হালাল হয়ে থাকে তাহলে তার থেকে ইনকাম আপনার হালাল হয়ে থাকবে।

প্রশ্নঃ ফেসবুকে ১ মিলিয়ন ফলোয়ার হলে কত টাকা ইনকাম হয়?
উত্তরঃ ফেসবুকে ১ মিলিয়ন ফলোয়ার হলে কত টাকা ইনকাম হয়ে থাকে এটি নির্দিষ্টভাবে বলা সম্ভব নয়। কারণ ফেসবুকে প্রতিটি পোস্টের জন্য বিভিন্ন ধরনের ইনকাম হয়ে থাকে। অর্থাৎ প্রতি কনটেন্ট বা পোষ্টের জন্য আলাদা আলাদা ইনকাম হয়। সে ক্ষেত্রে সহজেই ইনকাম কত হয় সেটি বলা সম্ভব নয়। তবে আপনি আনুমানিকভাবে পঞ্চাশ হাজার টাকা থেকে এক লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন।

প্রশ্নঃ রিলসে 1000 ভিউয়ের জন্য ফেসবুক কত টাকা দেয়?
উত্তরঃ ফেসবুকে রিলসে ১০০০ ভিউয়ার জন্য কত টাকা দেওয়া হয়, এই বিষয়টি নির্দিষ্ট ভাবে বলা সম্ভব নয়। কারণ ফেসবুক বিভিন্ন রিয়েলসের জন্য ভিন্ন ভিন্ন পেমেন্ট দিয়ে থাকে। তবে আপনি মাসে প্রতি এক হাজার ভিউয়ার জন্য কমপক্ষে ১০ থেকে ২০ ডলার আয় করতে পারবেন।

প্রশ্নঃফেসবুক ক্রিয়েটরদের বেতন কত?
উত্তরঃ ২০২৪ সালের হিসাব অনুযায়ী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একজন কনটেন্ট ক্রিয়েটরের প্রতি ঘন্টায় ইনকাম ৩৮ ডলার। তবে বাংলাদেশীদের ক্ষেত্রে কম হতে পারে।

শেষ কথা

আশা করছি আপনারা আজকের পোস্টটিতে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার বিভিন্ন উপায় ও মাধ্যম সম্পর্কে জানতে পারলেন। তাছাড়াও পোস্টটিতে মূলত ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার সেরা ১৫ টি উপায় সম্পর্কে তুলে ধরা হয়েছে। এই উপায় গুলো সম্পর্কে আপনি ভালো মতো জানতে পারলে সহজেই টাকা ইনকাম করতে পারবেন। 

তাই আপনি যদি ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে চান তাহলে অবশ্যই উপরুক্ত উপায় গুলো ভালো করে পড়ুন এবং জানুন। বর্তমানে অনলাইন থেকে আয় করা খুবই সহজ বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। আপনি যে কোন একটি বিষয়ে পারদর্শী হলেই অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। তবে আপনাদের সেই উপায়গুলো জানতে হবে যা আমরা আজকের পোস্টটিতে আলোচনা করেছি।23489

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি বিডির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url