বিমান টিকেট মূল্য কত এবং কম দামে বিমান টিকেট কেনার উপায়[বিস্তারিত গাইড]

প্রিয় পাঠক আপনারা কি বিমান টিকেট মূল্য সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন। তাহলে একদম সঠিক জায়গাতেই রয়েছেন। কারণ আজকের পোস্টটিতে বিমানের টিকিট মূল্য কত ও কম দামে বিমান টিকিট কেনার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা তুলে ধরা হবে।
বিমান টিকেট মূল্য
আর্টিকেল সূচিপত্রঃপ্রিয় বন্ধুরা আপনারা যদি কম দামে বিমান টিকিট কিনতে চান এবং বিমানের টিকিট মূল্য সম্পর্কে জানতে চান তাহলে অবশ্যই পোস্টটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন। কারণ আজকের পোস্টে বিমান টিকিট মূল্য ও কম দামে বিমান টিকিট কেনার উপায় সম্পর্কে আলোচনা করা হবে।

ভূমিকা | বিমান টিকেট মূল্য ২০২৪

আমাদের মধ্যে অনেকে আছে যারা এক শহর থেকে অন্য শহরে যাওয়ার জন্য বিমানে করে গিয়ে থাকে। খুব দ্রুত সময়ে বিভিন্ন স্থানে যাওয়ার জন্য অনেকেই বিমানে করে গিয়ে থাকে। তবে যারা নতুন রয়েছেন তাদের অবশ্যই বিমানে করেও কোন স্থানে যাওয়ার পূর্বে বিমান টিকিটের মূল্য সম্পর্কে জেনে রাখতে হবে। আপনি বিমানের টিকিটের মূল্য জেনে রাখলে সহজেই দালালদের মাধ্যমে প্রতারিত হবেন না। 
তাছাড়াও কম দামে বিমানের টিকিট কিনতে পারবেন, এজন্য আপনাদের কম দামে বিমানের টিকিট কেনার কৌশল সম্পর্কে জানতে হবে। আর এজন্য আমরা আজকের পোস্টটিতে বিমানের টিকিটের দাম ও কম দামে বিমানের টিকিট কেনার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। তাছাড়াও বিমান টিকিট বুকিং কিভাবে করবেন সে সম্পর্কেও তুলে ধরা হবে।

বাংলাদেশের বিমান সংস্থার নামের তালিকা গুলো কি কি

বিমানের টিকিট কেনার জন্য আপনাদের অবশ্যই বিমান সংস্থার নামের তালিকা সম্পর্কে জানতে হবে। বর্তমানে আমাদের দেশে চারটি বিমান সংস্থা রয়েছে। এই বিমান সংস্থাগুলো বিমান পরিচালনা করে থাকে।বিমান সম্পর্কিত সকল কাজকর্ম তারা করে থাকে। তাছাড়াও বিমানের টিকিট তারাই দিয়ে থাকে। আপনারা এসব সংস্থা থেকে বিমানের টিকিট কিনতে পারবেন। তবে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে বাংলাদেশের বিমান সংস্থার নাম গুলো জেনে নেই।
  • নোভোএয়ার
  • বিমান বাংলা এয়ারলাইন্স
  • এয়ার অ্যাস্ট্রা
  • ইউএস বাংলা এয়ারলাইনস
উপরোক্ত সংস্থাগুলো বিমান পরিবহন কার্যাবলী পরিচালনা করে থাকে। আর আমাদের দেশে এই চার ধরনের বিমান সংস্থা রয়েছে। আশা করছি আপনারা বাংলাদেশের বিমান পরিবহন সংস্থাগুলো সম্পর্কে জানতে পারলেন।

বিমান টিকেট মূল্য

আপনারা হয়তো এতক্ষণ ধরে বিমান টিকিট মূল্য জানার জন্য অপেক্ষা করে রয়েছেন। তবে আপনাদের জন্য আমরা আজকের এই অংশে বিমান টিকিট দাম কত এ সম্পর্কে আলোচনা করব। সাধারণত বিভিন্ন সময়ে বিমানের টিকিটের দাম কম বেশি হয়ে থাকে। তাই সঠিকভাবে বিমানের টিকিটের দাম বলা সম্ভব নয়। তবে আমরা বিমানের টিকিটের দাম সম্পর্কে ধারণা দিতে পারি। আপনারা চাইলে অনলাইনে বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে বিমানের টিকেটের দাম সম্পর্কে জেনে আসতে পারেন। 
বর্তমানে অনলাইনের মাধ্যমে বিমান টিকিট কাটার অনেক প্ল্যাটফর্ম রয়েছে যেখানে টিকিটের মূল্য লেখা থাকে। আপনারা চাইলে বাংলাদেশের বিমান এয়ারলাইন্স ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে বিমানের টিকিটের দাম দেখতে পারেন। তবে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে বিমান টিকেট মূল্য সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।
  • বর্তমানে ঢাকা থেকে সৌদি আরব যাওয়ার জন্য বিমান টিকেটের মূল্য ৫০ হাজার টাকা। তবে বিমান এয়ারলাইন্স অনুযায়ী টিকেটের দাম কম বেশি হয়ে থাকে।
  • বাংলাদেশ থেকে কাতার যাওয়ার জন্য বিমান টিকিটের মূল্য সাধারণত ৪০ হাজার থেকে ৫৫ হাজার টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।
  • ওমানের যাওয়ার জন্য বিমান টিকেটের দাম আনুমানিক ৫০ হাজার থেকে ৬০ হাজার টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।
  • বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়া যাওয়ার বিমান টিকেটের মূল্য আনুমানিক ৩০হাজার টাকা। মালয়েশিয়ার বিমান টিকিটের দাম মূলত ৩০ হাজার থেকে ৪০ হাজার টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।
  • কুয়েতে যাওয়ার জন্য কুয়েত বিমান টিকেট দাম ৪০ হাজার টাকা। এই বিমানের টিকিটের দাম বিভিন্ন সময়ে পরিবর্তনশীল হতে পারে।
আশা করছি আপনারা বিমান টিকিটের আনুমানিক দাম সম্পর্কে ধারণা পেলেন। বিমানের টিকেটের দাম কম বেশি হতে পারে এজন্য আপনারা বিমান এয়ারলাইন্সের সাথে যোগাযোগ করবেন। বিমান এয়ারলাইন্স আপনাদের সকল টিকিটের দাম সম্পর্কে বলে দেবে।

দেশের ভিতরে বিমান এয়ারলাইন্স টিকেট মূল্য

আমাদের দেশের মধ্যে অনেক ব্যক্তি রয়েছে যারা দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিমানে গিয়ে থাকেন। অনেকেই আবার ব্যবসার কাজে দ্রুত যাওয়ার জন্য বিমানে করে যান। এজন্য আপনাদের দেশের মধ্যেই বিমানের টিকিটের দাম কত সে সম্পর্কে জেনে রাখতে হবে। যার ফলে আপনি অতি সহজেই বিমান টিকেট মূল্য জেনে দেশের মধ্যেই যে কোন স্থানে বিমানে করে যেতে পারবেন। তবে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে দেশের ভিতরে বিমান এয়ারলাইন্স টিকিট মূল্য সম্পর্কে জেনে নেই।

দেশের মধ্যে  যাতায়াত স্থান

বিমান টিকেট মূল্য

Dhaka To Sylhat

৬ হাজার ৬০১ টাকা

Dhaka To Barisal

২ হাজার ৭৩০ টাকা

Dhaka To Jashore

৫ হাজার ১১০ টাকা

Dhaka To Saidpur

৬ হাজার ৬৬৯ টাকা

Dhaka To Rajshahi

৭ হাজার ৬০১ টাকা

Dhaka To Cox`s Bazar

৪ হাজার ৯০০ টাকা

Dhaka To Chattogram

৩ হাজার ৩০০ টাকা


তাহলে আশা করছি আপনারা দেশের মধ্যে বিমান এয়ারলাইন্স টিকেট মূল্য সম্পর্কে জেনে গেলেন। আপনারা দেশের মধ্যে যে কোন জায়গাতে বিমানের টিকিট কেটে বিমানে করে যেতে পারবেন।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স টিকেট দাম কত

আপনাদের মত অনেকে আছে যারা দেশের বাইরে বিভিন্ন কাজের জন্য বিমানে করে যেতে চান। তাদের অবশ্যই দেশের বাইরে যাওয়ার ক্ষেত্রে বিমানের টিকিটের মূল্য সম্পর্কে জেনে রাখা উচিত। অনেকেই ব্যবসার জন্য দেশের বাইরে গিয়ে থাকেন। তারা প্রায় বিমানে করে যেয়ে থাকেন। তবে বিমানের টিকেটের মূল্য আনুমানিক কত হতে পারে তা সম্পর্কে অনেকেই ভালোমতো জানেন না। 
এজন্য আমরা আজকের এই অংশে দেশের বাইরে যাওয়ার জন্য বিমানের টিকেটের আনুমানিক দাম সম্পর্কে তুলে ধরার চেষ্টা করব। তবে আপনারা চাইলে বিমান এয়ারলাইন্স থেকে দাম গুলো জেনে নিতে পারেন। তবে চলুন এখন আমরা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স টিকেট দাম সম্পর্কে জেনে নেই।

যাতায়াতের স্থান

বিমান টিকেট মূল্য(BDT)

Dhaka To Dammam

৭৩ হাজার ৪০৩ টাকা

Dhaka To jedda 

৭১ হাজার ৯৬৫ টাকা

Dhaka To Kuwait

৭১ হাজার ৬৬৩ টাকা

Dhaka To Jeddha 

৬০ হাজার ১৭৩ টাকা

Dhaka To London

২  লক্ষ ৫ হাজার ১১১ টাকা

Dhaka To Abu Dhabi

৪৩ হাজার ৫০০ টাকা

Dhaka To Kalkata

৭ হাজার ৬১০ টাকা

Dhaka To kathmandu

২০ হাজার ৬৩০ টাকা

Dhaka To Bankkok

৭৮ হাজার ৬৫০ টাকা

Dhaka To Delli 

৯ হাজার ৫০২ টাকা

Dhaka To kula lampur

৪১ হাজার ৬০০ টাকা

Dhaka To Muscat 

৫৬ হাজার ৫৩০ টাকা

Dhaka To Singapur

৩৩ হাজার ৭০০ টাকা


তাহলে আপনারা দেশের বাইরে যাওয়ার ক্ষেত্রে বিমানের টিকিটের দাম সম্পর্কে ধারণা পেলেন। যারা দেশের বাইরে বিভিন্ন স্থানে বিমানে করে গিয়ে থাকেন তারা অবশ্যই বিমানের টিকেট দাম সম্পর্কে জেনে রাখবেন। আর বিমানের টিকেট কাটার জন্য বিমান এয়ারলাইন্স এর সাথে যোগাযোগ করুন।

কম দামে বিমান টিকেট কেনার উপায়

আপনাদের মধ্যে অনেকে আছে যারা কম দামে বিমানের টিকেট কিনতে চান। এজন্য আপনারা প্রায়ই গুগলে কম দামে বিমানের টিকিট কেনার উপায় লিখে সার্চ করে থাকেন। আর এজন্য আমরা আজকের এই অংশটিতে কম দামে বিমানের টিকিট কেনার কৌশল সম্পর্কে আলোচনা করব। অনেক মধ্যবিত্ত পরিবার রয়েছে যারা বিমানে করে ভ্রমণের জন্য কম দামে টিকিট কিনতে চায়। 
তাদের জন্য আজকের এই অংশটি হতে যাচ্ছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ বিমানের টিকেট মূল্য নির্ধারিত নয়, টিকিটের দাম ওঠানামা করতে থাকে। অনেক সময় বেশি দাম হয়, আবার অনেক সময় কম দাম হয়ে থাকে।তাছাড়া যারা ভ্রমণের উদ্দেশ্যে বিমানে করে যেতে চান তারা চাইলে কম দামে টিকিট কিনে খরচ বাঁচাতে পারেন। 

এতে করে আপনার ভ্রমণে টাকা কম খরচ হবে এবং আপনি টাকা সেভ করতে পারবেন। যারা ভ্রমণ প্রিয় মানুষ এবং কম দামে বিমানের টিকেট ক্রয় করতে চান তারা অবশ্যই এই অংশটি ভাল করে পড়ুন। তবে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে কম দামে বিমান টিকেট কেনার উপায় গুলো জেনে নেওয়া যাক।

কার্যদিবসে ভ্রমণঃ আপনারা কম দামে টিকিট কেনার জন্য কার্য দিবসে বিমানে ভ্রমণ করতে পারেন। ছুটির দিনগুলোতে সাধারণত বিমান গুলোতে যাত্রীর চাপ বেশি থাকে, যার কারণে সেই সময়ে বিমানের টিকিটের দাম বেশি হয়ে থাকে। এই ছুটির দিনগুলোতে ভ্রমণ করা থেকে বিরত থাকুন অর্থাৎ বিমানের টিকিট কেনা থেকে বিরত থাকবেন। 

ছুটির দিনগুলোতে বিমানে করে ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা থাকলে অবশ্যই ১০ থেকে ১৫ দিন আগে বিমানের টিকেট বুকিং করে রাখবেন। তাছাড়াও যারা দেশের বাইরে ভ্রমণ করতে চান তারাও ছুটির দিনগুলো এড়িয়ে চলবেন, বন্ধের দিনে বিমানের টিকিট কাটবেন না। বিশেষ করে শনিবার , শুক্রবার ও রবিবার এই তিন দিন ভ্রমণ করা থেকে বেঁচে থাকবেন। 

এই তিন দিনে বিমানের টিকেট ক্রয় করবেন না, কারণ এই দিনগুলোতে দেশ-বিদেশে বিমানে যাত্রীর বাড়তি চাপ থাকে, এর ফলে টিকিটের দাম বহুগুণ বেড়ে যায়। আর এই সময়গুলোতে সারা বিশ্বে ভ্রমণের পরিমাণ অনেকটা বেড়ে গিয়ে থাকে।

বিমান এয়ারলাইন্স ওয়েবসাইট ভিজিট করুনঃ আপনি বিমানে করে যেই জায়গায় যাওয়ার পরিকল্পনা করতেছেন, সেখানে যেসব এয়ারলাইন্স ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট নিয়মিত ভিজিট করবেন। তারা অনেক সময় বিভিন্ন রকম ক্যাশ ভাউচার অফার , বিমানের টিকিট ডিসকাউন্ট অফার দিয়ে থাকে। তাছাড়া আরও বিভিন্ন ধরনের বিমানের টিকেটে অফার দেয়। এজন্য আপনারা প্রতিনিয়ত তাদের ওয়েবসাইটগুলোতে নজর রাখবেন।

থার্ড পার্টি ওয়েবসাইটঃ বর্তমানে বিমানের টিকিট বুকিং এর জন্য অনেক থার্ড পার্টি ওয়েবসাইট রয়েছে, যেখানে বিভিন্ন ধরনের ডিসকাউন্ট ও অফার দেয়া হয়ে থাকে। যার কারণে বিমানের টিকিটের মূল্য অনেকটা কম হয়। এজন্য আপনারা সবসময়ই এসব থার্ড পার্টি ওয়েবসাইট ও তাদের ফেসবুক পেজে লক্ষ্য রাখবেন। তারা অনেক সময় কম দামে বিমানের টিকেট দিয়ে থাকে।

হিডেন চার্জঃ বিমান ফ্লাইটের টিকিট বুকিং এর সময় অবশ্যই হিডেন চার্জের দিকে খেয়াল রাখবেন। টিকিট বুকিং এ অনেক ধরনের হিডেন চার্জ থাকে। সেসব চার্জের দিকে খেয়াল রেখে টিকিট কাটার চেষ্টা করবেন। তাছাড়া বাড়তি হিডেন চার্জ করা হচ্ছে কিনা সেগুলোর দিকে লক্ষ্য রাখবেন। আর যেখানে টিকিট বুকিং এ বাড়তি ফি চার্জ করা হচ্ছে, সেখানে টিকিট ক্রয় করা থেকে বিরত থাকবেন।

দিনের প্রথম ফ্লাইটে টিকিট বুকিং করার চেষ্টা করুনঃ দিনের প্রথম দিকে ফ্লাইটগুলোতে তুলনামূলক কম টিকেট বিক্রি হয়ে থাকে, যার কারণে অনেক সময় বিমানের টিকিটের দাম কম হয়। বিশেষ করে সকাল ছয়টা থেকে সাতটার আগে যেসব ফ্লাইট রয়েছে, সেগুলোর টিকিট ক্রয় করুন। এসব ফ্লাইটের টিকিটের দাম কিছুটা কম পেতে পারেন। মূলত সকালের দিকে বিমানের যাত্রীর তেমন চাপ থাকে না, এজন্য প্রায় সময় টিকেটের মূল্য কম হয়ে থাকে।

ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে বুকিংঃ বর্তমানে ক্রেডিট কার্ডের কোম্পানিগুলো তাদের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে আকৃষ্ট করার জন্য বিভিন্ন ধরনের ডিসকাউন্ট অফার দিয়ে থাকে। আপনারা এই ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে বিমানের টিকিট ক্রয় করলে ডিসকাউন্ট পেতে পারেন। তারা অনেক সময় বিভিন্ন কিছু কেনার সময় ডিসকাউন্ট প্রদান করে থাকে। 

তাই আপনারা বিমানের টিকিট বুকিং এর আগে জেনে নিবেন আপনার ক্রেডিট কার্ডে ডিসকাউন্ট অফার আছে কিনা, যদি বিমানের টিকেট কেনার সময় ডিসকাউন্ট অফার থাকে তাহলে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করুন। তাছাড়া ও দেশের বাইরে এসব ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে বিভিন্ন ধরনের সুযোগ সুবিধা পাওয়া যায়।

ভ্রমণ প্যাকেজঃ বর্তমান আমাদের দেশের বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্সি ঘুরতে যাওয়ার ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের প্যাকেজ অফার দিয়ে থাকে। তাদের প্যাকেজে বিমানে খরচ সহ আনুষঙ্গিক সকল খরচ যুক্ত করা থাকে। যেখানে প্রায়ই ভালো ধরনের ডিসকাউন্ট দেওয়া হয়। আপনি যদি কোথাও কম খরচে বিমানে করে ঘুরতে যেতে চান তাহলে এই প্যাকেজগুলোতে লক্ষ্য রাখতে পারেন। ট্রাভেল এজেন্সির ওয়েবসাইট ও ফেসবুক পেজে নজর রাখবেন। তারা বিভিন্ন সময়ে এ ধরনের ডিসকাউন্ট প্যাকেজ গুলো অফার করে থাকে।

কম দামে বিমান টিকেট ২০২৪ 

আপনার অনেকেই কম দামে বিমান টিকেট ২০২৪ সম্পর্কে জানতে চান। তাদের কথা বিবেচনা করে আমরা এখন কম দামে বিমান টিকেট ২০২৪ সম্পর্কে আলোচনা করব। আমরা ইতিমধ্যে উপরের অংশে কম দামে বিমান টিকেট কেনার উপায় সম্পর্কে আলোচনা করেছি। আপনারা সেই অংশটি পড়লে কম দামে বিমান টিকেট ক্রয় করতে পারবেন। আশা করছি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। তবুও আমরা এখন কম দামে বিমান টিকেট কেনার জন্য কিছু টিপস আলোচনা করব।
  • আপনারা কম দামে ফ্লাইট এর টিকেট পাওয়ার জন্য সচরাচর সকালের দিকে ভ্রমণ করার চেষ্টা করবেন। সকালের টিকিট গুলোর দাম কম হয়ে থাকে।
  • ছুটির দিনগুলো বাদে অন্যান্য সকল দিনে ফ্লাইটে তেমন যাত্রী চাপ থাকে না, আপনারা সেই দিনগুলোতে ভ্রমণ করবেন। অর্থাৎ ছুটির দিন ছাড়া অন্যান্য দিনগুলোতে বিমানের টিকেট ক্রয় করবেন।
  • বিমানের টিকিটে বিভিন্ন ডিসকাউন্ট ও অফারপেতে বিমান এয়ারলাইন্স ওয়েবসাইট গুলোতে সবসময়ই খেয়াল রাখবেন। তারা প্রায় সময় ডিসকাউন্ট অফার দিয়ে থাকে।
  • বর্তমানে বিমানের টিকেট বিভিন্ন এজেন্সি কম দামে বিক্রি করে থাকে। আপনারা সেইসব এজেন্সির দিকে লক্ষ্য রাখবেন।
  • অনেক ধরনের থার্ড পার্টি ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলো বিমানের টিকিট কম দামে বিক্রি করে থাকে। তাদের থেকে ক্রয় করতে পারেন। টিকেট ক্রয় করার পূর্বে অবশ্যই অরজিনাল কিনা ভেরিফাই করে নিবেন।
  • দেশের বাইরে বিমানে করে ভ্রমণ করতে চাইলে অবশ্যই কার্য দিবসে ভ্রমণ করার চেষ্টা করবেন। এ সময় বিমানের টিকিটের দাম কম হয়ে থাকে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স টিকেট বুকিং - অনলাইনে বিমানের টিকেট বুকিং

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স টিকেট বুকিং করতে হলে প্রথমেই তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। প্রথমে আপনি মোবাইল ফোনের যেকোনো বাজার থেকে বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্স অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে www.biman-airlines.com প্রবেশ করবেন। এবার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর Book Flight অপশনটিতে ক্লিক করবেন।

এখন আপনার সামনে আরো অনেকগুলো অপশন আসবে যেমনঃ One way,Round-trip,Multi-city ইত্যাদির অপশন গুলোর যেকোনো একটিতে আপনার চাহিদা অনুযায়ী ক্লিক করবেন। এবার আপনি যে শহরে যেতে চান সেটি নির্বাচন করতে হবে। এর জন্য ফ্লাইং টু অপশনে জায়গা নির্বাচন করবেন। আর আপনি যে স্থান থেকে ভ্রমণ শুরু করতেছেন সেটি নির্বাচন করতে হবে। 

এক্ষেত্রে flying form অপশনে আপনার নিজের স্থান সিলেক্ট করুন। এরপর আপনার বয়স কত সেটি দিতে হবে। তারপর প্রোমো কোডের অপশন রয়েছে। আপনি যদি কোন ডিসকাউন্ট প্রোমো কোড পেয়ে থাকেন তাহলে সেখানে প্রোমো কোড বসিয়ে এপ্লাই করতে পারেন। এতে করে বিমানের টিকিটে ডিসকাউন্ট পেতে পারেন। এবার সর্বশেষে সার্চ অপশনটিতে ক্লিক করবেন। 

সার্চ অপশনটিতে ক্লিক করার পর আপনি যে দিনে টিকিট ক্রয় করতে চাচ্ছেন সেই দিনে কোন ফ্লাইট আছে কিনা সেটা চেক করে দেখাবে। যদি আপনার দেওয়া তারিখে কোন ফ্লাইট থাকে তাহলে সেখানে সেটা দেখাবে। ফ্লাইট থাকলে প্রয়োজনীয় তথ্য পূরণ করে টিকিট বুকিং কনফার্ম করবেন। আশা করছি আপনারা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স টিকেট বুকিং কিভাবে করবেন সে সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। এভাবে আপনি অনলাইনের মাধ্যমে বিমানের টিকেট বুকিং করতে পারবেন।

বিমান টিকেট মূল্য সম্পর্কিত সাধারণ জিজ্ঞাসা ও প্রশ্ন(FAQ)

প্রশ্নঃবাংলাদেশ থেকে পোল্যান্ড বিমান ভাড়া কত?
উত্তরঃ বাংলাদেশ থেকে পোল্যান্ড বিমান ভাড়া আনুমানিক ৭৭,৮০০ টাকা থেকে ৮৭,৫৯০ টাকা ।

প্রশ্নঃসিলেট থেকে ঢাকা বিমান ভাড়া কত?
উত্তরঃ সিলেট থেকে ঢাকা বিমান ভাড়া বিভিন্ন এয়ারলাইন্স অনুযায়ী আনুমানিক তিন হাজার থেকে ৭০০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।

প্রশ্নঃঢাকা থেকে সিলেট যেতে কত সময় লাগে?
উত্তরঃ ঢাকা থেকে সিলেট যেতে বাসে করে সময় লাগে ৬ থেকে ৭ ঘন্টা। তবে বিমানে গেলে অতি দ্রুত যেতে পারবেন। ঢাকা থেকে সিলেটে বিমানে গেলে আনুমানিক ৩০ মিনিট থেকে ১ ঘন্টা সময় লাগতে পারে।

প্রশ্নঃকক্সবাজার বিমান ভাড়া কত?
উত্তরঃ কক্সবাজার জনপ্রতি বিমান ভাড়া বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্স অনুযায়ী ৩,৫০০ – ৪,০০০ টাকা।

লেখক এর মন্তব্য

তাহলে আপনারা আজকের এই পোস্টটিতে বিমান টিকেট মূল্য ২০২৪ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারলেন। তাছাড়াও কম দামে বিমান টিকেট ক্রয় করার উপায় সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। এর পাশাপাশি কিভাবে আপনি অনলাইনের মাধ্যমে বিমানের টিকিট ক্রয় করবেন সেই সম্পর্কে তুলে ধরা হয়েছে। মূলত পোস্টটিতে বিমানের টিকেট ক্রয় সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য আলোচনা করা হয়েছে। 

যার ফলে আপনারা এখন অতি সহজেই অনলাইনের মাধ্যমে বিমানের টিকিট কিনতে পারবেন বা টিকিট বুকিং করতে পারবেন। আর বিমানের টিকিট মূল্য জেনে ক্রয় করতে পারবেন। আর বিমানের টিকিট বুকিং করার ক্ষেত্রে অবশ্যই ভুয়া এজেন্সির কাছ থেকে দূরে থাকবেন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি বিডির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url